গবাদিপশুর খাদ্য

গবাদিপশুর খাদ্য খামারিদের কাছে একটি গুরুত্বপুর্ণ বিষয়। কোন খাবারের পুষ্টিগুণ কেমন তা জানা থাকলে খামারির গবাদিপশুর খাদ্য ব্যবস্থাপনা সঠিক ভাবে করা সহজ হয়। খাদ্যের দাম বিচারে পুষ্টিগুণ একটি বিবেচ্য বিষয়।

দেশের ৯৯ টি সু-পরিচিত ফিড

সু-পরিচিত ফিড

দেশের ৯৯ টি সু-পরিচিত ফিড গুলো আমাদের জানা থাকা দরকার। কেননা ইদানিং ঘরে ঘরে ক্যাটল, পোলিট্র ও ফিস ফিড কোম্পাণি গড়ে উঠেছে। এতোগুলো ফিডের মধ্যে আমরা কোন ফিডটি খাওয়াবো সিদ্ধান্ত নিতে কষ্ট হয়। নছিমন, করিমন, আলু, কদু, সোনা, রুপা, হীরা বিভিন্ন নামে বিভিন্ন জেলা-উপজেলা এমনকি গ্রাম পর্যায়ের খামারিদের মধ্যে কেও কেও ফিড কোম্পাণি খুলে বসেছেন। …

দেশের ৯৯ টি সু-পরিচিত ফিড Read More »

খাদ্য তৈরির উপাদান সমূহের পুষ্টিগুণ বিশ্লেষণ

খাদ্য তৈরির উপাদান সমূহের পুষ্টিগুণ বিশ্লেষণ

খাদ্য তৈরির উপাদান সমূহের পুষ্টিগুণ বিশ্লেষণ। মাছের খাদ্য, লেয়ার মুরগির খাদ্য, ব্রয়লার মুরগির খাদ্য, সোনালী মুরগির খাদ্য, গরুর খাদ্য সহ যে খাদ্যই তৈরি করুন না কেন, খাদ্য তৈরীর উপাদান সমূহের পুষ্টিগুণ যানা না থাকলে আপনি সঠিক বয়সের সঠিক খাদ্যটি তৈরী করতে পারবেন না। আর তাই খাদ্য তৈরির উপাদান সমূহের পুষ্টিগুণ যানা খামারির জন্য অতি গুরুত্বপূর্ণ …

খাদ্য তৈরির উপাদান সমূহের পুষ্টিগুণ বিশ্লেষণ Read More »

এমাইনো এসিড কি এবং কেন?

এমাইনো এসিড কি

এমাইনো এসিড হলো সেই সমস্ত যৌগ বা প্রোটিন তৈরীতে ব্যবহার হয়। অর্থাৎ প্রোটিন বা আমিষ কে ভাংলে বা বিশ্লেষণ করলে যেসকল উপাদান পাওয়া যায় তাদের কে এমাইনো এসিড বলে। বাংলাই এটিকে অ্যামাইনো এসিড, এমিনো এসিড, অ্যামিনো এসিড ইত্যাদি ভাবে উচ্চারণ করা হয়। এটি মানুষ সহ সকল গবাদিপশু পাখির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিভিন্ন এমাইনো এসিড চেইন …

এমাইনো এসিড কি এবং কেন? Read More »

গরুকে পোল্ট্রি ফিড খাওয়ানো হতে সাবধান

গরুকে পোল্ট্রি ফিড খাওয়ানো

গরুকে পোল্ট্রি ফিড খাওয়ানো হতে সাবধান! সম্প্রতি কিছু গরু মোটাতাজাকরণ খামারীদের মধ্যে গরুকে পোল্ট্রি ফিড খাওয়ানোর খুব বেশী প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। এসকল খামারীরা দ্রুত মোটাতাজা করার জন্য গরুকে পোল্ট্রি ফিড খাওয়াচ্ছে। যা গরুর আদর্শ খাদ্য ব্যবস্থাপনার পরিপন্থি ও মানব দেহের জন্য খতিকর। কিন্তু মুরগির খাদ্য কেন খাওয়ানো যাবে না? কি আছে ব্রয়লার মুরগির খাদ্যে? ব্রয়লার …

গরুকে পোল্ট্রি ফিড খাওয়ানো হতে সাবধান Read More »

নেপিয়ার ঘাস চাষ পদ্ধতি ও পুষ্টিগুণ

নেপিয়ার ঘাস চাষ

নেপিয়ার ঘাস চাষ পদ্ধতি ও পুষ্টিগুণ যানা না থাকলেও এই ঘাসের চাষ ও ব্যবহার আমাদের দেশে অনেক বেশি জনপ্রীয়। নেপিয়ার ঘাস একটি বহুবর্ষী ঘাস যা একবার আবাদ করলে ৪-৫ বছর একটানা ঘাস পাওয়া যায়। এই ঘাসের ফলন বেশি ও পুষ্টিগুণ ভালো থাকায় খামার পর্যায়ে ব্যপক জনপ্রীয়তা পেয়েছে। বছরের যে কোন সময় চাষ করা যায়। পানি …

নেপিয়ার ঘাস চাষ পদ্ধতি ও পুষ্টিগুণ Read More »

সয়াবিন মিল- প্রোটিনের প্রধান উৎস

সয়াবিন মিল

সয়াবিন মিল– প্রোটিনের প্রধান উৎস। সয়াবিন মিল গবাদিপশু, পোল্ট্রি ও মাছ সহ সকল ফার্ম এনিমেলের অন্যতম প্রোটিনের উৎস্য। এর কয়েকটি প্রচোলিত নাম রয়েছে। যেমন- সয়াবিন মিল, সয়ামিল, সয়াবিনের খৈল, সয়া প্রোটিন ইত্যাদি। সয়াবিন মিল বা খৈল থেকে ৪২%-৪৮% প্রোটিন পাওয়া যায়। এবং এই খৈলের প্রোটিনের মান খুবই ভালো। এই প্রোটিনে অন্যান্য উদ্ভিজ্য প্রোটিনের তুলনায় বেশি …

সয়াবিন মিল- প্রোটিনের প্রধান উৎস Read More »

ভুট্টা | গবাদিপশুর প্রধান খাদ্য উপাদান

ভুট্টা

ভুট্টা | গবাদিপশুর প্রধান খাদ্য উপাদান। ভুট্টা গবাদিপশুর কার্বোহায়ড্রেট এর চাহিদা পুরনের প্রধান উৎস। দাম কম এবং অধিক পুষ্টির জন্য পৃথিবী জুড়ে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত খাদ্যের উপাদান। অধিক পরিমানে স্টারর্স সঞ্চিত থাকায় অধিক পরিমানে শক্তি পাওয়া যায়। খাদ্যে কার্বোহায়ড্রেট এর উৎস। ভুট্টার পুষ্টিগুণ পাকা কর্ণ সংগ্রহ করার পরে শুকানো এবং আধা ভাঙা করে গরুকে অন্যান্য …

ভুট্টা | গবাদিপশুর প্রধান খাদ্য উপাদান Read More »

সাইলেজ | সংরক্ষিত সবুজ ঘাস

সাইলেজ

সাইলেজ একটি ইংরেজি শব্দ। সাইলেজ শব্দের দ্বারা গো-খাদ্যের বেলায় সবুজ ঘাসের পুষ্টিমান অক্ষুন্ন রেখে একটি নির্দিষ্ট Ph এ সংরক্ষিত সবুজ ঘাসকে বুঝায়। সাধারণত সব ধরনের সবুজ ঘাসই অম্লতায় সংরক্ষণ করে সাইলেজ তৈরি করা যায়। সংরক্ষণের ৪০দিন পর বছরের যে কোন সময় সংরক্ষিত ঘাস তুলে সরাসরি বা শুকনো খড়ের সাথে মিশিয়ে গরুকে খাওয়ানো যায়। বর্তমান সময়ে …

সাইলেজ | সংরক্ষিত সবুজ ঘাস Read More »

খেসারি ভুসি ও ডালের পশুখাদ্য হিসাবে ব্যবহার

খেসারি ভুসি

খেসারি ভুসি ও ডাল পশুখাদ্য হিসাবে সবগুলোই খুব পুষ্টিকর ও সুস্বাদু। এর মধ্যে আমাদের দেশে পশুখাদ্য হিসাবে খেসারি ঘাস ও খেসারি ভুসি-ই মুলত ব্যবহার হয়। খেসারি ডালের অপ্রতুলতার দরুন এটি খুব কম পরিমান ব্যবহার হয়। শুকনো খাসারি গাছ থেকে উৎকৃষ্ট মানের হে প্রস্তুত করা যায়। উন্নত জাতের গাভী কে খেসারি ঘাস, ডাল বা ভুসি রেশিও …

খেসারি ভুসি ও ডালের পশুখাদ্য হিসাবে ব্যবহার Read More »

রাফেজ | গরুর আঁশযুক্ত খাদ্য ও এর শ্রেণীবিভাগ

রাফেজ

গবাদিপশুর খাদ্য হিসাবে ব্যবহার হয় এমন আঁশযুক্ত খাদ্য কে রাফেজ বলে। যেমন ঘাস, সাইলেজ, খড়, সজিনা বা অন্যান্য গাছের পাতা, বিভিন্ন শস্যকণার আবরণ যা গবাদিপশু খেতে পারে ইত্যাদি। রাফেজে রুমেন ডাইজেস্টেবল ফাইবার বা আঁশ থাকে।

error: Content is protected !!