পোলিট্র তে লিম্ফয়েড লিউকোসিস ডিজিস (Avian Leukosis)

লিম্ফয়েড লিউকোসিস কমপ্লেক্স (Lymphoid Leukosis Complex) রোগটি সাধারণতঃ ভাইরাস দিয়ে সৃষ্ট।  অতএব চার মাস বয়স থেকে যেকোনো বয়সের মুরগিতে এই রোগ হতে দেখা যায়। লিম্ফয়েড লিউকোসিস রোগ মূলত অ্যাভিয়ান লিউকোসিস ভাইরাসজনিত হাঁস-মুরগির একটি নিউওপ্লাস্টিক রোগ।

এই রোগটি বি-সেল লিম্ফোমা দ্বারা চিহ্নিত, প্রায় 16 সপ্তাহ বা তার বেশি বয়সী মুরগীতে দেখা দেয়। রোগ নির্ণয়ের জন্য ব্যবহৃত স্ট্যান্ডার্ড মানদণ্ডগুলির মধ্যে রয়েছে ইতিহাস, ক্লিনিকাল লক্ষণ, স্থূল নেক্রপসি এবং হিস্টোপ্যাথোলজি। কোনও চিকিত্সা বা ভ্যাকসিন পাওয়া যায় না, তাই প্রজনন পাখি থেকে ভাইরাস নির্মূল করাই সবচেয়ে কার্যকর নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি।

লিম্ফয়েড লিউকোসিস ডিজিস (Avian Leukosis)

লিম্ফয়েড লিউকোসিস রোগ পরিচিতি

রোগের নামলিম্ফয়েড লিউকোসিস কমপ্লেক্স (Lymphoid Leukosis Complex)
রোগের ধরণভাইরাল
জীবাণুর নামএভিয়ান লিউকোসিস ভাইরাস (avian leukosis virus.)
সংক্রমণপোল্ট্রি
মৃত্যুর হারকম ও নিয়মিত।
সংক্রমন সময়১৬ সপ্তাহ ও তার বেশি বয়সে।
চিকিৎসানাই
এভিয়ান লিউকোসিস ভাইরাস (avian leukosis virus.)
এভিয়ান লিউকোসিস ভাইরাস (avian leukosis virus.)

রোগ ছড়ানোর মাধ্যম

  1.  ডিমের মাধ্যমে বাচ্চাদের রোগটি সংক্রমিত হয় এই ফলকে বা ঝাকে আক্রান্ত মুরগি হতে সুস্থ মুরগিতে ছরাই। 
  2. সংক্রমিত মুরগির লাল ও পায়খানার মাধ্যমে এ রোগ ছড়াতে পারে।

রোগের লক্ষণ

  1. আক্রান্ত মুরগি ফ্যাকাশে হয়,  ক্ষুধামন্দা হয়, একেবারেই শুকিয়ে যায় এবং ডিম উৎপাদন কমে যায়।
  2. পিত্তরস  সবুজ পায়খানা হয় প্রতিদিন রাতে 500 টি মুরগির মধ্যে তিন থেকে চারটি মুরগি মারা যেতে থাকে। 
  3. অনেক সময় লক্ষণ ছাড়াও প্রতিদিন রাতে মুরগি মারা যেতে থাকে।

ময়নাতদন্ত রিপোর্ট

  1. শরীরের ভেতরের বিভিন্ন অঙ্গ বিশেষ করে যকৃত এবং প্লীহা  ফুলে বড় হয়ে যায়। 
  2. যকৃতে  নডিউল সৃষ্টি হয়। 
  3. হৃদপিন্ডে অসংখ্য সাদা আকৃতির নডিউল বা গুটি দেখা যায়।

রোগের চিকিৎসা ব্যবস্থা বা দমন পদ্ধতি

 এ রোগের কোনো চিকিৎসা নেই আক্রান্ত মুরগিকে মেরে পুড়িয়ে ফেলতে হবে অথবা মাটিতে পুঁতে রাখা ভালো।

সাধারণত, এটি 14 সপ্তাহের কম বয়সী পাখিগুলিতে দেখা যায় না।
মারাত্মক সমস্যাগুলি বেশিরভাগ 24 থেকে 40 সপ্তাহের মধ্যে বয়সের মধ্যে দেখা দেয়।
স্বতন্ত্র নোডুলার টিউমার।
ফ্যাব্রিসিয়াসের বার্সায় টিউমার।

রোগ প্রতিরোধ

 যেসব উৎস হতে রোগ ছড়ায় সে উৎসগুলো প্রতিহত করতে পারলে রোগ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না মুরগীর খামারের সর্বদা স্বাস্থ্যসম্মত বিধির ব্যবস্থা মেনে চলতে হবে ।

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

1 thought on “পোলিট্র তে লিম্ফয়েড লিউকোসিস ডিজিস (Avian Leukosis)”

Leave a Comment

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!