রুমিনাল অ্যাসিডোসিস ও কার্বোহাইড্রেট ইনগর্জমেন্ট

রুমিনাল অ্যাসিডোসিস ও কার্বোহাইড্রেট ইনগর্জমেন্ট। আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে এই সমস্যা প্রায়ই দেখতে পাওয়া যায়। এটি সাধারণত খাদ্যাভ্যাসজনিত কারণে সৃষ্ট হয়। এটি গবাদি পশুর রুমেনের অসুস্থতা। অতিরিক্ত কার্বোহাইড্রেট ও প্রোটিন জাতীয় খাদ্য খেলে রুমিনাল অ্যাসিডোসিস (Ruminal acidosis) ও কার্বোহাইড্রেট ইনগর্জমেন্ট সমস্যা হতে দেখা যায়। এতে গরুর পেট ফাঁপা ও বদ হজম হতে পারে।

রুমিনাল অ্যাসিডোসিস

রোগের কারণ

  • হঠাৎ করে বেশী পরিমানে পাকা খাদ্য শস্য খেলে।
  • হঠাৎ করে খাদ্য অথবা খাদ্য উপাদানের পরিবর্তন করলে।
  • গবাদি পশুকে বেশী পরিমাণে ভাত অথবা খুদ খাওয়ালে।

রুমিনাল অ্যাসিডোসিস লক্ষণ

  • বদ হজম ও খাদ্য গ্রহণে অনিহা এবং গরুর মাজল শুষ্ক থাকা এ রোগের প্রধাণ লক্ষণ।
  • পশু জাবর কাটা বন্ধ করে দেয়।
  • গরুর পায়খানা প্রায়ই বন্ধ হয়ে যায়। মল ত্যাগ করলেও তা শক্ত, কালো ও পরিমানে খুব কম হয়।
  • রুমেন ফুলে উঠে ও গরুর বাম পাশের ফ্লান্ক টিপলে সেটি শক্ত মনে হয় এবং বসে যায়।
  • শ্বাস-প্রশ্বাসের হার বৃদ্ধি পায় এবং ডিহাইড্রেশন হতে দেখা যায়।
  • গবাদি পশুর কোষ্ঠকাঠিন্য দেখা দেয়।

এসিডোসিস প্রতিরোধ ও চিকিৎসা

  • পশুকে ম‍্যাগভেট প্লাস/ম‍্যাগলেক্স ভেট সাসপেনশন নির্ধারিত মাত্রায় সেবন করাতে হবে।
  • সোডিয়াম বাই কার্বনেট ইনজেকশন সোডিজেক্ট ভেট / এসবিনেট ইনজেকশন শিরায় প্রয়োগ করতে হবে।
  • ডিহাইড্রেশন সংশোধন এর জন্য ২-৩ লিটার নরমাল স‍্যালাইন গরুর শিরায় প্রয়োগ করতে হবে।
লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!