ব্ল্যাক সোলজার ফ্লাই মাছির লার্ভা- প্রাণিসম্পদের জন্য প্রাণিজ আমিষের একটি সুলভ উৎস্য

ব্ল্যাক সোলজার ফ্লাই মাছি

ব্ল্যাক সোলজার ফ্লাই (black soldier fly) মাছির লার্ভা হয়ে উঠেছে প্রাণিসম্পদের জন্য প্রাণিজ আমিষের একটি সুলভ উৎস্য। বর্তমানে প্রাণিসম্পদ সেক্টরে ব্ল্যাক সোলজার ফ্লাই মাছির খামার ও লার্ভা কৃষি অর্থনিতীতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান সৃষ্টি করেছে। বহুমুখী পুষ্টিগুণ ও উপকার বিবেচনায় পোল্ট্রি খামারিরা এটিকে বলছে বাদামি সোনা বা ব্রাউন গোল্ড। বাংলাদেশেও এই বিশেষ প্রজাতির মাছির খামার গড়ে উঠছে। এই মাছি থেকে উৎপাদিত লার্ভা প্রাণিসম্পদের প্রোটিনের চাহিদা পুরণ করছে।

ব্ল্যাক সোলজার ফ্লাই মাছি পরিচিতি

এই মাছি দেখতে সম্পূর্ণ কালো ও সান্ত প্রকৃতির। এরা প্রকৃতি ও মানুষের জন্য ক্ষতিকর নয়। ব্ল্যাক সোলজার ফ্লাই (Hermetia illucens) লার্ভা পুষ্টির দিকদিয়ে এবং পরিবেশ-বান্ধব উৎপাদন ক্ষমতার উপর ভিত্তি করে মুরগি এবং মাছের খাবারের বিকল্প হিসাবে দ্রুত সারা পৃথিবীতে ছরিয়ে পরছে। প্রাপ্তবয়স্ক কালো সৈনিক মাছিগুলি এখন সারা বিশ্বে পালন করা হচ্ছে।

ব্ল্যাক সোলজার ফ্লাই চাষ

ব্ল্যাক সোলজার ফ্লাই চাষ বা খামার করা বর্তমানে বিশ্বের পোকামাকড় চাষের সবচেয়ে বিস্তৃত রূপ। ব্ল্যাক সোলজার ফ্লাই এর দ্রুত উৎপাদন চক্র এবং প্রোটিনের উচ্চ মাত্রার কারণে খাদ্য উৎপাদনের জন্য দারূণ উপযুক্ত। লার্ভাতে প্রোটিনের মাত্রা উচ্চ থাকায় তাদের বিভিন্ন ধরণের প্রাণীর জন্য খাদ্যের একটি আদর্শ উৎস হিসাবে বিবেচিত হয়।

এই মাছির লার্ভা উৎপাদন দুটি ধাপে হয়ে থাকে। যথা-

  1. প্রজনন পর্যায়
  2. উৎপাদন পর্যায়

নিম্নে লার্ভা উৎপাদনের পর্যায় গুলো সম্পর্কে আলোচনা করা হলো

প্রজনন পর্যায়

প্রজনন পর্যায় কে হ্যাচারি পর্যায়ও বলা হয়, প্রাপ্তবয়স্ক ব্ল্যাক সোলজার ফ্লাইস দ্বারা জমা করা ডিমগুলি জৈব খাদ্য বর্জ্যের মতো অবশিষ্ট বর্জ্য সমন্বিত কম্পোস্টে রাখা হয়। সম্পূর্ণরূপে নিয়ন্ত্রিত অবস্থার অধীনে, ডিমগুলি খুব দ্রুত ছোট লার্ভাতে পরিণত হয়।

উৎপাদন পর্যায়

উৎপাদন পর্যায়ে, তাপমাত্রা, আর্দ্রতা এবং খাদ্য সরবরাহ সাবধানে নিয়ন্ত্রিত হয় এবং লার্ভা বৃদ্ধির জন্য অপ্টিমাইজ করা হয়, যা মাত্র 6 দিনের মধ্যে তাদের সর্বোচ্চ দেহের ভরে পৌঁছায়। এই সময়ের মধ্যে, লার্ভা দ্রুত জৈব বর্জ্য থেকে পুষ্টি গ্রহণ করে যাতে একটি প্রাপ্তবয়স্ক মাছি হিসাবে তাদের জীবনের নিম্নলিখিত পর্যায়ের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করে।

এই লার্ভাতে ৪০-৬৫% প্রোটিন থাকে।

আরো পড়ুন: এমাইনো এসিড কি এবং কেন?

Leave a Comment

Your email address will not be published.