ফ্লেকভি গরু | সবচেয়ে লাভজনক জাতের গরু

ফ্লেকভি গরু | সবচেয়ে লাভজনক জাতের গরু। ফ্লেকভি গরু হলো সারা পৃথিবীতে বর্তমান সময়ের সবচেয়ে লাভজনক এবং সবচেয়ে জনপ্রিয় ডুয়াল পারপাস (মাংস এবং দুধ) গরুর জাত। যা আমাদের আজকের আলোচিত গরুর জাত। গরুর এই বিস্ময়কর জাত Fleckvieh কে বেস্ট ট্রিপল পারপাস গরু ও বলা হয়ে থাকে। কারণ এটা মাংসর জন্য, দুধের জন্য এবং যেকোনো আবহাওয়া তে পালন উপযোগী।

ফ্লেকভি গরুর জাত পরিচিতি

ফ্লেকভি গরু
জাতের নামফ্লেকভি / Fleckvieh
জাতের ধরনদুধ এবং মাংস
উচ্চতাষাঁড়- ১৫০-১৬৫ সেন্টিমিটার
গাভী- ১৪০-১৫০ সেন্টিমিটার
গড় ওজনষাঁড়- ১১০০-১৩০০ কেজি
গাভী- ৭০০-৮০০ কেজি
বাছুর- ৩০ কেজি
আদি বাসস্থান সুইজারল্যান্ড
বিস্তৃতিইউরোপ, আমেরিকা, আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া ও এশিয়ার প্রাই সকল গরু পালনকারী দেশ।
(সংক্ষিপ্ত পরিচিতি)

ফ্লেকভি জাতের গরুর গড় ওজন

ফ্লেকভি জাতের ষাঁড় গরুর গড় ওজন সাধারণত ১১০০-১৩০০ কেজি হয়ে থাকে। এবং ফ্লেকভি জাতের গাভী গরুর গড় ওজন সাধারণত ৭০০-৮০০ কেজি হয়ে থাকে।

ফ্লেকভি গরুর উৎস দেশ

আজ থেকে প্রায় ১৪০০ বছর আগে থেকে সুইজারল্যান্ডে পালন করা হতো ‘সুইস ফ্লেকভি’ নামের বড় আকৃতির এই সিমেন্টাল গরু। এই গরু ব্যবহার করো হতো মূলত কৃষিকাজ, গরুর গাড়ি টানা এবং দুধ ও মাংসের জন্য। পরবর্তী সময়ে তথা ঊনবিংশ শতাব্দির প্রথম দিকে জার্মান, অস্ট্রিয়া ও এর পার্শবর্তী এলাকার গরুর উন্নয়নের জন্য ‘সুইস ফ্লেকভি’ গরুর সাথে স্থানীয় একাধিক জাতের ক্রস করা হয়।

এতেই বর্তমানের ফ্লেকভি জাতের গরু ধীরেধীরে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। তাই আদি ‘সুইস ফ্লেকভি’ জাতের উতসস্থান সুইজারল্যান্ড হলেও নতুন এই জাতের উতস স্থান জার্মানি ও অস্ট্রিয়া।

ফ্লেকভি জাতের গরুর ইতিহাস নিয়ে মতভেদ রয়েছে। তবে সবচে প্রতিষ্ঠিত ইতিহাস হচ্ছে প্রায় ১৪০০ বছর আগে সুইজারল্যান্ডে কৃষিকাজ, গরুর গাড়ি টানা এবং দুধ ও মাংসের জন্য ‘সুইস ফ্লেকভি’ নামের তুলনামুলক বড় আকৃতির সিমেন্টাল গরু পালন করা হতো। জার্মানির স্থানীয় জাতের গরুর দুধ ও আকৃতি উন্নয়নের জন্য ১৮৩০ সালে ম্যাক্স ওবেরমেয়ের নামক এক ব্যক্তি এই জাতের গরু জার্মানিতে আমদানি করেন।

আর স্থানীয় সবচেয়ে শক্ত এবং রোগ প্রতিরোধী লাল সাদা জাতের গরুর সাথে ক্রস করান এতেই সৃষ্টি হয় শক্ত, রোগ প্রতিরোধী ডুয়াল পারপাস (মাংশ এবং দুধ) এক নতুন জাত ফ্লেকভি।

গবেষণায় দেখা গেছে পৃথিবীতে মোট এই জাতের গরুর নিবন্ধিত সংখ্যা ৪১ মিলিয়ন বা তার বেশি। ফ্লেকভি গরু পালনকারী দেশের মধ্যে রয়েছে : উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকার প্রায় সব দেশ, কেনিয়া সহ আফ্রিকার প্রধান প্রধান গরু পালনকারী সকল দেশ, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড এবং ইউরোপের প্রায় সকল দেশ। এছাড়াও ফ্লেকভি জাতের গরু প্রতিদিন নতুন নতুন এলাকা এবং ক্রমবর্ধমান হরে ছড়িয়ে পড়ছে।

ফ্লেকভি গরুর জনপ্রিয়তা

১৮৩০ সালের পর থেকে ফ্লেকভি জাতের গরুর জনপ্রিয়তা সারা পৃথিবীতে বাড়তে থাকে।

  • ১৮৯৪ : অস্ট্রিয়ান সিমেন্টাল ফ্লেকভি ব্রিডিং এসোসিয়েশন গঠন।
  • ১৮৯৫ : আমেরিকায় ফ্লেকভি গরুর আমদানি।
  • ১৮৯৫ : সাউথ আফ্রিকায় ফ্লেকভি গরুর আমদানি।
  • ১৯১৮ : ব্রাজিলে ফ্লেকভি গরুর আমদানি।
  • ১৯২২ : আর্জেন্টিনায় ফ্লেকভি গরুর আমদানি।
  • ১৯৭২ : অস্ট্রেলিয়ায় ফ্লেকভি গরুর আমদানি।
  • ১৯৭৪ : নিউজিল্যান্ডে এই জাতের গরুর আমদানি।
  • ১৯৯৭ : টোটাল মেরিট ইনডেক্স এ দুধ, মাংস এবং রোগ প্রতিরোধী এবং যেকোনো আবহাওয়া উপযোগী গরু হিসাবে রেকর্ড করা হয়।

ফ্লেকভি গরুর বৈশিষ্ট এবং সুবিধা

  • চরম ভাবাপন্ন শীত ও গরম আবহাওয়ায় ভালোভাবে টিকে থাকতে পারে
  • রোগ প্রতিরোধী হিসাবে সবচেয়ে জনপ্রিয় গরু ফ্লেকভি
  • বিশাল আকৃতির লাল এবং সাদা রং এর মিশ্রণ এই গরুর আলাদা সৌন্দর্য।
  • এই জাতের গরুর শরীরের উপরের ভাগ লাল হলেও পেটের নিচের ভাগ এবং মুখের কাছে ও পা এর নিচের অংশে সাদা রং এর আধিক্য দেখা যায়।
  • এই গরু যেমন ইউরোপের শীতপ্রধান আবহাওয়া তে সহজে মানিয়ে নিতে পারে তেমনি কেনিয়ার প্রচন্ড গরমেও এগরুর কোনো সমস্যা হয়না।
  • এটাই একমাত্র গরুর জাত যা মাংসের জন্য যেমন জনপ্রিয় তেমনি দুধের জন্য।

ফ্লেকভি গাভী

এই ফ্লেকভি গাভী গরু প্রথম বাচ্চায় এক উৎপাদন কালে তথা ৩১০ দিনে ৭০০০ লিটার দুধ দেয়। প্রতি দিন গড়ে ২২ লিটার দুধ। পর পরবর্তী বাচ্চা প্রসবের পর হতে প্রতি উতপাদনকালে গড়ে ৯০০০-১০০০০ লিটার দুধ দেয় যা প্রতি দিন গড়ে ২৯-৩২ লিটার দুধ।

উতপাদনকাল থাকে ৩১০-৩৬০ দিন। এই গাভীর দুধে ফ্যাট এর গড় পরিমান ৪.২-৪.৪ % এবং মিল্ক প্রোটিন ৩.৫-৩.৮ % ।

এই গরুর দুধের একটি বিশেষ বৈশিষ্ঠ্য হলো এর দুধে অধিক পরিমানে উপকারী ওমেগা ৩ ওয়েল থাকে।

ফ্লেকভি ষাঁড়

ফ্লেকভি গাভী থেকে জন্ম নেওয়া ফ্লেকভি ষাঁড় প্রথম ২০০ দিনে ১.৫ কেজি করে ওজন বৃদ্ধি পায় যা যেকোনো ইন্ডিজেনাস গরুর জন্য সর্বোচ্চ। এই জাতের গরুর মাংস অন্যান্য ইউরোপিয়ান গরুর মাংস হতে বেশি সুস্বাদু। এই জাতের গরু দেখতে অন্যান্য গরু থেকে সুন্দর হওয়ায় ষাড়ের বাজার মূল্য অন্যান্য ইউরোপিয়ান ব্রীড এর চেয়ে সবসময় অনেক বেশি।

এই গরুর অর্থনৈতিক গুরুত্ব

  • রোগ প্রতিরোধী হওয়াতে ফ্লেকভি চিকিতসা খরচ প্রায় ৪০-৫০% কম দরকার হয়।
  • এছাড়া হোলস্টাইন ফ্রিসিয়ান এর তুলনায় এটা ২৫ % খাবার কম খায়।
  • এই জাতের গরুর রয়েছে যেকোনো আবহাওয়া তে সহজে মানিয়ে নেয়ার সহজাত ক্ষমতা।
  • চামড়া মোটা হওয়াতে যেকোনো টিক্স বা চামড়ার উপরের পোকা এটাকে সহজে আক্রান্ত করতে পারেনা।
  • ফ্লেকভি একটি পরীক্ষিত গাভী যা সপ্তম বা অষ্টম বার বচ্চা দেয়ার পরেও দুধ দেয়ার ক্ষমতা ও প্রজনন ক্ষমতা অপরিবর্তিত থাকে।
  • এই জাতের ষাড় প্রথম দেড় বছরের মধ্যে ৫০০ কেজি হয়ে থাকে।
  • ফ্রিজিয়ান যেখানে ৭ টি বাচ্চা দেয়ার পর পালনের অনুপযোগী হয়ে যায় সেখানে ফ্লেকভি অ্যাভারেজ ১০ টা পর্যন্ত বাচ্চা খুব সহজে দেয় দুধ উতপাদনের কোনো পরিবর্তন ছাড়াই।

এই জাতের অর্থনৈতিক গুরুত্ব এমন পর্যায়ে যে, ইউরোপের বাজারে বর্তমানে একটা এক মাস বয়সী ফ্লেকভির বাছুর এর দাম ২৫০ ইউরো যেখানে ফ্রিজিয়ান এর দাম ১২০ ইউরো। এটি বর্তমানে স্বল্প সময়ে এখন পৃথিবীর দ্বিতীয় প্রধান পালিত গরু।

এ গরুর জীবনকাল

ফ্লেকভি গরুর জীবনকাল এবং দুধ উতপাদন বয়স হোলস্টাইন ফ্রিজিয়ান এর চেয়ে ২০-৪০% বেশি, যে কারণে এই জাতের যেকোনো গাভী যেকোনো ফ্রিজিয়ান গভীর চেয়ে প্রায় ১৫-৩০% বেশি দুধ দেয়। ফ্রিজিয়ান এর চেয়ে ২৫ % কম খাবার খেয়ে প্রায় সম পরিমান দুধ দেয়। এজাতের গরু সারাজীবনেে ১০ টির বেশি বাচ্চা প্রদান করে।

আমাদের দেশে ফ্লেকভি জাতের গরু পালন শুরু হয়েছে। যানতে পেরেছি আমেরিকান ডেইরূ লিমিটেড (ADL) নামের একটি সিমেন উৎপাদন কারী প্রতিষ্ঠান এই বীজ আমদানী ও বাংলাদেশে বাজারজাত করছে।

আপনারা চাইলে আপনার এলাকার এডিএল কর্মীর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

ফ্লেকভি গরুর সৌন্দর্য

ফ্লেকভি গরুর বাছুর, ষাঁড় ও গাভী কোনটিই দেখতে কমা না। চোঁখ জুরিয়ে যাবার মত এই জাত। আমেরিকা ও ইউরোপে এই গরুর দাম অন্য জাতের চেয়ে সবসময় বেশি থাকে। এই জাতের সিমেনের দামও বেশি।

রোগ প্রতিরোধী

ফ্লেকভি গরু একটি খুবই ভালো রোগ প্রতিরোধী গরুর জাত। এই সংকর জাতটি তৈরি করতে একটি রোগ প্রতিরোধী ও পরিশ্রমীু জাতের সাথে ক্রস করানো হয়েছে। যার ফলে এটি রোগ প্রতিরোধী ও কর্মঠ হয়েছে। বাংলাদেশের আবহাওয়ায় এই ফ্লেকভি গরু পালন করে লাভবান হওয়া সম্ভব।

আরো পড়ুন-

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

8 thoughts on “ফ্লেকভি গরু | সবচেয়ে লাভজনক জাতের গরু”

  1. ফ্লেকভি জাতের গরু বাংলাদেশ আনা সম্ভব?
    যদি আপনারা আনতে পারেন তবে তার আপডেট দিবেন.।

  2. Md. Shaiful Islam

    বর্তমানে ১০০% ফ্লেকভি সিমেন বাংলাদেশের এডিএল নামক একটি কম্পাণি আমদানি করছে। আর্টিকেল কাজের চাপে আপডেট করা হয়নি। এজন্য আন্তরিক দু:ক্ষিত।

  3. Md. Shaiful Islam

    আমার জানামতে এডিএল আমদানীকরা ও দেশেই উৎপাদিত ফ্লেকভি সিমেন সুলভ মূল্যে সরবরাহ করছে। কমেন্ট করার জন্য আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ।

  4. mohasinali740@gmail.com

    ফ্লেকভী জাতের গরু সিমেন মাঠ পর্যায় দেওয়া গেছে বাছুর খুব সুন্দর,, তবে খোঁজে রাখতে হবে,

  5. ব্রাহ্মণবাড়িয়া নাসিরনগর অথবা হবিগঞ্জ-লাখাই ADL এর কোন প্রতিনিধির নাম্বার
    থাকলে দিবেন

  6. রিমান

    ভৈরবে কোন এডিল কর্মী আছে? থাকলে নাম্বার দেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!