খেসারি ভুসি ও ডালের পশুখাদ্য হিসাবে ব্যবহার

খেসারি ভুসি ও ডাল পশুখাদ্য হিসাবে সবগুলোই খুব পুষ্টিকর ও সুস্বাদু। এর মধ্যে আমাদের দেশে পশুখাদ্য হিসাবে খেসারি ঘাস ও খেসারি ভুসি-ই মুলত ব্যবহার হয়। খেসারি ডালের অপ্রতুলতার দরুন এটি খুব কম পরিমান ব্যবহার হয়। শুকনো খাসারি গাছ থেকে উৎকৃষ্ট মানের হে প্রস্তুত করা যায়। উন্নত জাতের গাভী কে খেসারি ঘাস, ডাল বা ভুসি রেশিও অনুপাতে খাওয়ালে দুধের উৎপাদন বৃদ্ধি পায়।

পশুখাদ্য হিসাবে খেসারি ঘাস

খেসারি ভুসি

সবুজ খেসারি গাছ গরু-ছাগলের জন্য একটি উৎকৃষ্ট মানের ঘাস। এই ঘাসে সাধারণ ঘাসের তুলনায় অনেক বেশি প্রোটিন ও মিনারেলস থাকে। খেসারি গাছের ঘাস খুবই সুস্বাদু। খেসারি ঘাস ফুল আসার পর থেকে খাওয়ানো আরম্ভ করা যায়। এই খাসের চাষ পদ্ধতি খুবই সহজ ও ঝামেলা হীন। ধান কাটার পর ভেজা জমিতে বীজ ছিটিয়ে দিলেই চলে। আমাদের দেশের দুগ্ধ-ভান্ডার হিসাবে পরিচিত পাবনা ও শীরাজগন্জ জেলায় এই ঘাসের ব্যপক প্রচলন।

গবাদিপশুর খাদ্য হিসাবে খেসারি ডাল

আমাদের বাংলাদেশে গরুর খাদ্যে প্রোটিন চাহিদা পূরণের জন্য একটি সাশ্রয়ী খাদ্য উপাদান হলো খেসারি ডাল। অধিক ক্রুড প্রোটিন থাকার কারণে এবং দাম কম হওয়ায় আমাদের দেশের গরুর অন্যতম প্রধান প্রোটিন জাতীয় খাবার হতে পারে খেসারি ডাল অথবা খেসারি ডালের খোসা বা ভুসি।

খেসারি ডালের ভুষি সরাসরি দানাদার খাবারের সাথে মিশিয়ে অথবা খেসারি ডাল গুঁড়া করে অন্যান্য দানাদার খাবারের সাথে মিশিয়ে আমরা আমাদের গবাদিপশু কে সরবরাহ করতে পারি।

প্রতি কেজি খেসারি ডালে প্রায় ১৯ মেগাজুল শক্তি সঞ্চিত থাকে যা দিয়ে ৩ কেজির উপরে দুধ তৈরী হতে পারে। কিন্তু মাথাই রাখতে হবে যে অতিরিক্ত খেসারি ডাল খাওয়ালে গরুর বাত সমস্যা এমনকি পঙ্গুও হয়ে যেতে পারে।

খেসারি ডালের পুষ্টি উপাদান

  • ড্রাই ম্যাটার : ৯০.৯%
  • ক্রুড প্রোটিন : ৩০%
  • ক্রুড ফাইবার : ৬.৪%
  • স্টার্চ : ৪৯.২%
  • নিউট্রাল ডিটারজেন্ট ফাইবার : ২০%
  • এসিড ডিটারজেন্ট ফাইবার : ৭.১%
  • লিগনিন : ১.৩%
  • হজম যোগ্য এনার্জি : ১৯.১ মেগাজুল/কেজি
  • ক্যালসিয়াম : ০.৮০ গ্রাম/কেজি
  • ফসফরাস : ২.৯ গ্রাম/কেজি
  • ম্যাগনেসিয়াম : ১.৪ গ্রাম/কেজি

ব্যবহার মাত্রা ও সতর্কতা

দানাদার খাবারে ২০-২৫% খেসারি ডাল ব্যবহার দৈনিক প্রোটিনের চাহিদা পূরণের জন্য যথেষ্ট। তবে সাবধান গরুকে কোনোভাবেই নিয়মিত শুধুমাত্র খেসারি ডালের উপর নির্ভরশীল করা যাবেনা।

কেননা খেসারি ডালে যে ‘বি অক্সাইল’ নামক এক প্রকার নিউরোটক্সিক এমাইনো এসিড থাকে তাতে গরু প্যারালাইসিস বা পঙ্গু হয়ে যেতে পারে। আর তাই সুষম দানাদার খাদ্যে নিয়মিত ১০% পর্যন্ত খেসারি ডাল সরবরাহ কর যেতে পারে।

তবে গরুকে অতিরিক্ত শুয়ে থাকতে দেখলে বা গরুকে দাঁড়াতে অনীহা প্রকাশ করতে দেখলে খেসারি ডাল খাওয়ানো বন্ধ করে দেওয়া উচিত। তবে ষাঁড় গরুকে বিক্রির আগে ২০% পর্যন্ত খেসারি ডাল খাওয়ানো যেতে পারে।

পশুখাদ্য হিসাবে খেসারি ভুসি

পশুখাদ্য হিসাবে খেসারি ভুসিও খুব পুষ্টিকর ও সুস্বাদু। খেসারি ভুুসির দাম তুলনামুলক কম থাকে। খেসারি ভুষিতে পর্যাপ্ত প্রোটিন, ফ্যাট, ফাইবার সহ নানা ধরনের মিনারেল পাগয়া যায়। খেসারি ভুসি গবাদিপশু খুব সহজে হজম করতে পারে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে দেখা যায় ডাল মিল থেকে বা আড়োৎদার দের কাছ থেকে ময়লা মাটি যুক্ত খেসারি ভুসি সরবরাহ হয়। তাই খেসারি ভুসি কেনার সময় অবশ্যই ধুলা-বালি মুক্ত ও টাটকা দেখে কিনতে হবে।

খেসারি ভুুসির পুষ্টিগুণ

  • প্রোটিন- ১৮-২২%
  • ফ্যাট- ৩-৪%
  • ফাইবার- ৭%

রিলেটেড পোস্ট

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!