টবে চায়না কমলা চাষ পদ্ধতি

টবে চায়না কমলা চাষ করতে প্রথমে নার্সারি থেকে ভালো মানের ৩-৪ মাস বয়সী চারা কিনে আনতে হবে। এবং সেই চারা টবে রোপন করে নিয়মিত পরিচর্যার মাধমে বড় করে তুলতে হবে।

টবে চায়না কমলা চাষ চাষ পদ্ধতি বেশ জনপ্রীয় হচ্ছে। চায়না কমলা সাধারনত ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার উপরে এবং ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রার নিচে থাকে এমন আবহাওয়া কমলা লেবু চাষের জন্য উত্তম।

টবে চায়না কমলা চাষ
টবে চায়না কমলা চাষ

টবে চায়না কমলা চাষ

টবে চায়না কমলা চাষ করতে দেড় থেকে দুই ফিট উচ্চতার টব সবচেয়ে উপযোগী। টবে যাতে ৫০-৬০ কেজি মাটি ধারন করতে পারে। টব গোলাকার ও চতুস্কনাকৃতির হতে পারে। সিমেন্টের অথবা প্লাস্টিকের টব ব্যবহার করা যেতে পারে। এছাড়াও বাসা বাড়ির অব্যবহৃত বাকেট ও অন্যান্য পাত্র টব হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। সেক্ষেত্রে নিচের দিকে ছিদ্র করে নিষ্কাশন ব্যবস্থা রাখতে হবে।

টব প্রস্তুত

টবের নিচের স্তরে পাতলা করে ছোট পাথর বা খোয়া দিতে হবে। এটা নিচের দিকে পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা ঠিক রাখে। এর পরে পাতলা স্তরে বালি ব্যবহার করুন। এর উপরে জৈব সার মিশ্রিত দোয়াস মাটি দিয়ে টব পূর্ণ করুন।

মটি তৈরি

অর্ধেক মাটি ও অর্ধেক গোবর সার ভালোভাবে মিশিয়ে রোদ্রে শুকিয়ে নিতে হবে। এতে মাটি ঝুরঝুরে হবে। কোনভাবেই ভেজা গোবর বা সার ব্যবহার করা যাবে না। মোট পরিমানের শতকরা ১০ ভাগ ভার্মি কম্পোষ্ট সার মেশানো যেতে পারে। এর সাথে ৫% শুকনো কোকোপিট ব্যবহার করা যেতে পারে। সেই সাথে নিম খৈল ব্যবহার করলে ভালো হয়। সম্পূর্ণ মিশ্রণ দুই দিন রোদে শুকাতে হবে।

চায়না কমলার চারা

টবে চায়না কমলা চাষ করতে কলম চারা ভালো। কেননা কলম চারা সবসময় শক্তিশালী হয় এবং দ্রুত ফল ধরে। চারার বয়স যাতে কম না হয় এবং চারার গোড়ায় পর্যাপ্ত মাটি থাকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। চারা কমলা গাছের পাতা সতেজ হলে ভালো হয়।

টবে চায়না কমলার চারা রোপন

টবে চায়না কমলা চাষ করতে প্রথমে চারাকে জীবাণুমুক্ত করে নিতে হবে। চারার গোড়ার পলিথিন বা যে পাত্র থাকে তা সরিয়ে ফেলতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে শেকড় যেন ক্ষতিগ্রস্থ না হয়। চারা গাটি সোজা করে টবের মধে রেখে চারিদিকে প্রস্তুতকৃত মাটি দ্বারা পূর্ণ করতে হবে।

টবের উপর থেকে ১-২ ইন্চি ফাকা রাখতে হবে পরবর্তিতে সার ও পানি দেওয়ার জন্য। এর পর পর্যাপ্ত পানি ঢেলে সেচ দিতে হবে। আটকে থাকা পানি যদি ১০ মিনিটের মধ্যে নিষ্কাশিত হয় তাহলে বুঝতে হবে টবে চারা রোপন সঠিক হয়েছে।

পরিচর্যা ও সার ব্যবস্থাপনা

এক মাস পর গাছে নতুন পাতা গজাতে শুরু করে এবং বৃদ্ধি পেতে শুরু করবে। প্রতিটি গাছে প্রতি মাসে ১ চা চামচ এনপিকে বা মিশ্রসার এবং ৬০০ গ্রাম গোবর পানিতে মিশিয়ে টবের মাটিতে প্রয়োগ করতে হবে।

প্রুনিং বা ডাল ছাটায়

টবে চায়না কমলা চাষ প্রুনিং বা ডাল ছাটায় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। গাছে ফুল আসার অনেক আগেই গাছের ডাল কেটে নতুন কুশি বেরকরে গাছকে ঝাকড়া গঠন তৈরি করতে হবে। এতে কমলা ফল বেশি পাওয়া যাবে।

ফুল ও ফল

গাছ বড় হলে ১-২ বছরের গাছে কমলা ধরে। চায়না কমলা গাছে প্রচুর ফুল ও কড়ি আসে। টবের ছোট গাছে অতিরিক্ত ফল ধরলে ফলের আকার খারপ হয়। তাই প্রতিটি থোকায় দুটি করে কমলা রেখে বাকি গুলো তুলে ফেলতে হবে।

টবে চায়না কমলা চাষ বৃক্ষ প্রেমীদের কাছে আগ্রহের বিষয়। বেলে এবং দোঁআশ মাটিতে চায়না কমলালেবু চাষ করার জন্য ভালো। বাংলাদেশের বৃহত্তর সিলেট, চট্টগ্রাম, পার্বত্য চট্টগ্রাম ও পঞ্চগড় জেলার মাটি ও আবহাওয়া কমলা চাষ উপযোগী। আমাদের দেশে চায়না কমলা লেবু চাষের যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে।

আরো পড়ুন- বচ- একটি গুরুত্বপূর্ণ ঔষধি গাছ

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!