খামার থেকে পশু বিক্রি করলে টোল দিতে হবে না

খামার থেকে পশু বিক্রি করলে সেখান থেকে কোনও ইজারাদার টোল আদায় করতে পারবেন না বা খামারিকে কোনো প্রকার টোল দিগে হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন “শ ম রেজাউল করিম” (মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী)। তিনি সম্প্রতি এক আলোচনা সভাই বলেন,

‘আমাদের প্রতিবছর কোরবানির সময় কিছু কিছু খারাপ অভিজ্ঞতা হয়। কোরবানির পশু পরিবহনের সময় রাস্তায় ব্যাপক চাঁদাবাজি হয়, দীর্ঘসময় প্রাণীকে ট্রাক ও অন্যান্ন পরিবহনে আটকে রাখতে হয়। এবার কোরবানির ঈদে আমরা চাই কোনোরকম চাঁদাবাজি হবে যেন না হয়। যে অঞ্চলে সুযোগ আছে, সে অঞ্চল থেকে ট্রেনে গবাদিপশু পরিবহন হবে। খামারিদের খামার থেকে কোরবানির পশু বিক্রি হলে সেখান থেকে কোনো ইজারাদার টোল আদায় করতে পারবেন না।’

৯ জুলাই ২০২০ (বৃহস্পতিবার) সচিবালয়ের মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের দাফতরিক কক্ষে ‘কোরবানির পশুর হাটে সুস্থ-সবল গবাদিপশু সরবরাহ ও বিক্রয় নিশ্চিতকরণ’ শীর্ষক এক অনলাইন সভায় সভাপতির বক্তব্যে মন্ত্রী তিনি এসব কথা বলেন।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী আরো বলেন ‘এবছরও দেশে পর্যাপ্ত কোরবানির পশুর জোগান আছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, এই বছর মোট ১ কোটি ১৮ লাখ ৯৭ হাজার ৫০০টি গবাদিপশু কোরবানির জন্য মজুত আছে।’

পশু বিক্রি

যার মধ্যে-

  • গরু-মহিষের সংখ্যা ৪৫,৩৮,০০০ টি
  • ছাগল-ভেড়ার সংখ্যা ৭৩,৫৫,০০০ টি
  • অন্যান্য ৪,৫০০টি

মন্ত্রী আরো জানান ককোরবানির জন্য কোনও অবস্থাতেই বিদেশ থেকে গবাদিপশু আনার অনুমতি দেওয়া হবে না। করোনার কারণে গবাদিপশু বিপণনে এবছর আমরা অনলাইন বাজারের ওপর জোর দেওয়ার চেষ্টা করছি।’ এই সংবাদে খামারিরা অত্যান্ত খুসি ও আনন্দিত। কেননা খামারিরা সব সময় খামার থেকে গরু বিক্রির পক্ষে। কিন্তু এক শ্রেণীর ব্যবসায়ী বা হাট ইজারাদার খামারির এই দাবিকে তোয়াক্কা না করে হাট ছাড়া গরু বিক্রয় হবে না বলে ঘোষণা দিচ্ছে। এমন কি ইজারাদার খামারে লোক পাঠাচ্ছে টোল আদায় করার জন্য।

অনলাইন এই সভায় উপস্থিত ছিলেন

  • রওনক মাহমুদ, সচিব, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়
  • কাজী ওয়াছি উদ্দিন, অতিরিক্ত সচিব
  • ডা. আবদুল জব্বার শিকদার, প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের মহাপরিচালক
  • ড. নাথু রাম সরকার, মহাপরিচালক, বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট
  • বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ দফতরের উপপরিচালকরা
  • মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ
  • জননিরাপত্তা বিভাগ
  • তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ
  • স্থানীয় সরকার বিভাগ
  • বাণিজ্য মন্ত্রণালয়
  • স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ
  • ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়
  • নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়
  • বাংলাদেশ রেলওয়ে
  • ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন
  • বিজিবি
  • স্বাস্থ্য অধিদফতর
  • চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস
  • প্রাণিসম্পদ খাতের উদ্যোক্তা ও
  • খামারিদের বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধি গণ।

প্রীয় খামারি খামার থেকে পশু বিক্রি বা ক্রয় করা এই শিল্পের জন্য একটি ভালো দিক। খামারি টাকা খরচ করে, পরিশ্রম করে গরু তৈরী করে আর লাভ করে গরুর ব্যাপারী আর কশাই। খামার থেকে গরু কিনলে রোগ মুক্ত গরু ন্যায্য দামে পাওয়া যায়। আমাদের মোটাতাকরণ গরু সবসময় ফ্যানের নিচে আরাম আয়েসে পালিত হয় এই গরু গ্রাম থেকে শহরে বা হাটে নিতে গরুর উপর ব্যপক ধকল যায়। আর তাই কোরবানির সময় খামার থেকে গরু বিক্রির ব্যবস্থা নিতে হবে।

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।
error: Content is protected !!