অক্সিমোর ট্যাবলেট/পাউডার- পানিতে দ্রবীভূত অক্সিজেন

অক্সিমোর ট্যাবলেট/পাউডার- পানিতে দ্রবীভূত অক্সিজেন। অক্সিমোর ট্যাবলেট/পাউডার এসকেএফ কোম্পাণির একটি পুকুর ম্যনেজমেন্ট ও মাছ চাষের প্রোডাক্ট। পুকুর ও অন্যান্য জলাসয়ের পানিতে দ্রুত অক্সিজেন সরবরাহ করতে কার্যকর একটি প্রোডাক্ট। এটি ব্যবহারের ফলে পানিতে দ্রবীভূত অক্সিজেনের পরিমান বৃদ্ধি পায়। কোন কারণে পানিতে অক্সিজেন কমে গেলে অক্সিমোর ট্যাবলেট/পাউডার ব্যবহার করা যেতে পারে।

অক্সিমোর ট্যাবলেটপাউডার- পানিতে দ্রবীভূত অক্সিজেন
অক্সিমোর ট্যাবলেটপাউডার- পানিতে দ্রবীভূত অক্সিজেন

অক্সিমোর প্রোডাক্ট পরিচিতি

প্রোডাক্টের নামঅক্সিমোর (Oxymore)
উপাদানসোডিয়াম কার্বনেট পারঅক্সিহাইড্রেট ৯০%
ফরমুলেশনট্যাবলেট/পাউডার
ব্যবহারজলাশয়ের পানিতে দ্রুত অক্সিজেন সরবরাহ করতে পুকুরের পানিতে, বায়োফ্লক ট্যাংক, ঘেরে,
হাওড়-বাওড়ের পানিতে ব্যবহার করা যেতে পারে।
সতর্কতানেই
প্যাক সাইজ ৫০০ গ্রাম X ২
বাজারজাতকারীএসকেএফ ফার্মাসিটিক্যালস লিঃ (এনিমেল হেল্থ্য ডিভিশন)
দাম (খুচরা মূল্য)— টাকা

কার্যকারীতা

  1. জলাশয়ে দ্রবীভূত অক্সিজেনের দ্রুত সরবরাহ নিশ্চিত করে।
  2. হঠাৎ অক্সিজেনের অভাবজনিত কারনে মাছ ও চিংড়ির মৃত্যু হার কমায়।
  3. সালেকসংশ্লেষণ প্রক্রিয়ার অনুপস্থিতিতেও পানিতে অক্সিজেনের সরবরাহ বজায় রাখে।
  4. বিভিন্ন প্রোটোজোয়া বিশেষ করে জ্যুথামনিয়াম ধ্বংসে দারুন কার্যকর।
  5. অ্যানারবিক ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধি এবং বংশবিস্তার রোধ করে।

অক্সিমোর যেভাবে কাজ করে

এর মূল উপাদান সোডিয়াম পারকার্বোনেট পানির সাথে বিক্রিয়া করলে হায়ড্রোজেন পারঅক্সাইড তৈরি হয়, এই হাইড্রোজেন পারঅক্সাইড থেকে পানি আলাদা হলে অক্সিজেন মুক্ত হয় যা পানিতে দ্রবীভূত থাকে।

অক্সিমোর

ব্যবহারের নিয়ম

প্রতি একর বা ১০০ শতাংশ জলাকার ও ৩-৬ ফুট পানির গভীরতার জন্য।

সাধারণ অক্সিজেন সংকটে২৫০ থেকে ৫০০ গ্রাম
তীব্র অক্সিজেন সংকটে৭৫০ গ্রাম থেকে ১ কেজি

শেষ কথা

পরিশেষে অক্সিমোর ট্যাবলেট/পাউডার রিভিউ পোস্টে এটায় বলবো এটি একটি বহুল ব্যবহৃত অক্সিজেন পাউডার বা ট্যাবলেট। এ ধরনের পণ্য মৎস্য খামারিদের সবসময় মজুত করে রাখে। কেননা হঠাৎই অক্সিজেনের প্রয়োজন পড়ে।

আরো পড়ুন- মাছ ও চিংড়ি চাষে প্রোবায়োটিক এর ব্যবহার

Leave a Comment

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!